ভাসমান পেয়ারা মার্কেট

তাহমিদ শাহরিয়ার অনিম

এশিয়া মহাদেশের বৃহত্তম পেয়ারা বাগান আটঘর কুড়িয়ানা পেয়ারা বাগান। এটি গড়ে উঠেছে বরিশাল, ঝালকাঠি, পিরোজপুর সীমান্তবর্তী এলাকায়।পিরোজপুর জেলার স্বরূপকাঠী থানা সদর থেকে ৮ কি.মি. পূর্ব দিকে এর অবস্থান। এখানকার প্রায় ২০ হাজার পরিবার পেয়ারা চাষের সাথে জড়িত। ২৬ টি গ্রাম নিয়ে এর ৩১ হাজার একর জমির উপর গড়ে উঠেছে এই পেয়ারা বাগান।

এখানকার হাটগুলো সারাবছর থাকলেও সাধারণত পেয়ারার মৌসুমেই জমে ওঠে হাটগুলো। ভিমরুলের হাট খালের মোহনায় বসে। হাজার হাজার পেয়ারা বিক্রেতা নৌকায় করে পেয়ারা নিয়ে আসে হাটে। প্রতিদিন কয়েক হাজার মন পেয়ারা বেচাকিনি হয় এই অঞ্চলে। দূর দুরান্ত থেকে নদিপথে পাইকাররা এসে এখানে পেয়ারা কিনে। এই এলাকায় রয়েছে অসংখ্য পেয়ারার বাগান। চাষিরা সরাসরি বাগান থেকে পেয়ারা পেরে বিভিন্ন অঞ্চলের পাইকারদের কাছে বিক্রি করে।

অনেকে এই বাজার সমূহকে থাইল্যান্ডের ফ্লটিং মার্কেটের সাথে তুলনা করে থাকেন। ভিমরুলের বাজারের সব থেকে ব্যস্ত সময় দুপুর ১২ টা থেকে বিকেল ৫ টা। স্থানীয়দের মতে প্রায় দুই শতাধিক বছর আগে এই অঞ্চলের একজন ভারতের বিহার রাজ্যের গয়াতে যান তীর্থ করতে। সেখানেই এই ফল দেখে বীজ এনে বপন করেছিলেন আটঘর-কুড়িয়ানাতে। গয়া থেকে আনা বীজবপন করে ফল পাবার পর এর নাম রাখা হয়েছিল গয়া। আর সেখান থেকেই স্থানীয়দের কাছে এই ফল গয়া নামে পরিচিতি লাভ করে।

এখানে ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকায় নৌকার কেনা-বেচাও হয়। নৌকা বিক্রেতারা একটি বড় নৌকা বা ট্রলারে করে তাদের নৌকা নিয়ে আসে এখানে। রাস্তার নৌকার এই হাট মুগ্ধ হতে বাধ্য করে।

আটঘর কুড়িয়ানার নৌকা হাট

সাধারণত পেয়ারার মৌসুমেই জমে উঠে হাটগুলো। অর্থাৎ জুলাই,আগস্ট, সেপ্টেম্বর মাস সব থেকে উপযোগী পেয়ারা বাগান ভ্রমণের জন্য। যদিও পেয়ারার মৌসুমের পরে আসে আমরার মৌসুম। এর পরে আবার সুপারি।

সড়ক পথে ঢাকার গাবতলি থেকে বরিশাল এর বাস ছাড়ে ভাড়া ৪০০ টাকা। বরিশাল এর নতুল্লাবাদ থেকে বাসে অথবা সিএনজি করে যেতে হবে বানারিপাড়া। সিএনজি তে ভাড়া নিবে ৪০/৫০ টাকা। তারপর সেখান থেকে নসিমনে ১৫ টাকা ভাড়া দিয়ে যেতে হবে কুড়িয়ানা। একটু হেটে একটা ব্রীজ পাড় হয়ে আবার অটো করে ৫ টাকা ভাড়ায় যেতে হবে আটঘর ও কুড়িয়ানা বাজারে।

আর ভিমরুলি যেতে চাইলে বানারিপাড়া থেকে নৌকা বা ট্রলারে যাওয়াই ভালো। অথবা নৌ পথে ঢাকার সদরঘাট ঠেকে প্রতিদিন পিরোজপুর/বরিশাল এর লঞ্চ ও ষ্টীমার ছাড়ে বিকেল ৫ টা থেকে ৭ টা পর্যন্ত। ডেকের ভাড়া ২০০/২৫০ টাকা আর কেবিন সিঙ্গেল ৭০০/১০০ এবং ডাবল ১৫০০/২০০০ টাকা। বানারিপারা গিয়ে সেখান থেকে উপড়ে উল্লেখিত নিয়মে অথবা এখান থেকেই ট্রলার রিসারভ করে নিয়ে যাওয়া যায়। ভিমরুলি, আটঘর, কুড়িয়ানা সহ আরো অনেক ছোট বাজার ও বাগান ঘুড়িয়ে আনার জন্য ৫০০-৭০০ টাকা ভাড়া নিবে ছোট ট্রলারে আর বড় ট্রলার ১২০০-১৫০০ টাকা। অবশ্যই দামাদামী করে ভাড়া ঠিক করতে হবে।

প্রতিবছরই অনেক দেশি-বিদেশী পর্যটক ঘুরতে আসে আটঘর কুড়িয়ানা। এই অঞ্চলের পেয়ারা বাগান এবং হাটগুলো এদের আকর্ষণের কারণ। এগুলো পরিবেশের এক অপরুপ সৌন্দর্য বহন করছে।

ছবিঃ লেখক

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here