অলিম্পিয়াড! পাঁচ অক্ষরের শব্দটার মধ্যেই লুকিয়ে আছে প্রতিদ্বন্দ্বিতার এক তীব্র ঝাঁজ। মেধা আর মননের বিকাশ। ঐতিহ্যগতভাবে অলিম্পিয়াড আর বর্তমান সময়ের জ্ঞান ভিত্তিক গণিত,পদার্থ কিংবা জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের কিছু পার্থক্য রয়েছে। কিন্তু তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতার দিক দিয়ে উভয়েরই রয়েছে বিশদ মিল। পত্রিকা অলিম্পিয়াড ও সেরকম ভিন্নধর্মী এক অলিম্পিয়াড যেখানে নিজ মেধা কিংবা বুদ্ধির পাশাপাশি স্মৃতিচর্চার ও চরম এক লড়াইয়ে মেতে ওঠে সবাই। “READ NEWSPAPER,GAIN KNOWLEDGE ” মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে দেশব্যাপী এরকম আয়োজন এক বিস্ময়ের ব্যাপার। এবার আসল গল্পে আশা যাক: নিউজপেপার অলিম্পিয়াড এর যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯ অক্টোবর ২০১৮ -র কোনো এক শুভক্ষণে। মাত্র ১২০ টাকা নিয়ে শুরু হয়েছিল যে অলিম্পিয়াড,তা আজ পৌঁছে গেছে দেশের ৩৯ জেলায়। উত্তরের গাইবান্ধা থেকে শুরু হয়ে পূর্বাঞ্চল, মধ্যাঞ্চল পেরিয়ে দক্ষিনের জেলাগুলোতেও পৌঁছে গেছে আজ। প্রায় আট মাস ব্যাপী এই আয়োজনে অংশ নিয়েছিল প্রায় দশ হাজার স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থী।

স্কুল কিংবা কলেজ পেরিয়ে এই অলিম্পিয়াড বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের অংশগ্রহণে মুখর হয়েছে । দেশের ৩৯ জেলার ১১ টি আঞ্চলিক উৎসবের আয়োজন শেষে খুঁজে নেয়া ২৫০ প্রতিযোগীকে নিয়ে ঢাকার বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিতহয় নিউজপেপার অলিম্পিয়াডের প্রথম বর্ষের জাতীয় প্রতিযোগিতা । অলিম্পিয়াড ছাড়াও আয়োজনে ছিল অঙ্কনে সাংবাদিকতা, প্রেস টক, দেয়াল পত্রিকা প্রদর্শনী সহ আরো অনেক কিছু …. উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির পরিচালক আনজির লিটন, সময় টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক তুষার আব্দুল্লাহ , দৈনিক খোলা কাগজ এর সম্পাদক ড. কাজল রশীদ শাহিন , শিল্পী ইলিয়াস হোসাইন সহ আরো অনেক সফল ব্যক্তিত্ব। প্রত্যেক গ্রুপ থেকে প্রথম , দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারীর পাশাপাশি অঙ্কনে সাংবাদিকতা,দেয়াল পত্রিকার বিজয়ীদের ও পুরস্কৃত করা হয় । দেশসেরা পত্রিকাবিশারদ হওয়ার গৌরব অর্জন করে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাদিয়া শান্তা। বড় কোনো স্পনসর ছাড়াই সফল এক আয়োজনে সক্ষম হয়েছে এই অলিম্পিয়াড শুধু দেশের অভ্যন্তরে নয়, এই অলিম্পিয়াডকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে অলিম্পিয়াড কমিটি কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে জাপান,কানাডা, রাশিয়া, চীন, অস্ট্রেলিয়া এবং ভারতে অলিম্পিয়াডের যাত্রা শুরু হয়েছে। দেশসমূহ থেকে বাছাইকৃত প্রতিযোগীদের নিয়ে আগামী বছর দেশের মাটিতে আন্তর্জাতিক পত্রিকা অলিম্পিয়াড আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। এই অলিম্পিয়াডকে দেশ ও দেশের বাইরে সবথেকে বড় উৎসবে পরিণত করাই অলিম্পিয়াড কমিটির একমাত্র লক্ষ্য।

আর এই লক্ষ্যে অলিম্পিয়াড কমিটির এক ঝাঁক তরুণ কাজ করে যাচ্ছে। আগামীতে দেশের ৬৪ জেলার পাশাপাশি ইউরোপ ও আমেরিকা মহাদেশেও এই অলিম্পিয়াডকে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে কাজ চলছে। দেশের সব বয়সের মানুষের মধ্যে পত্রিকা পাঠের অভ্যাস তৈরি করাই এই অলিম্পিয়াডের মূল লক্ষ্য । আর সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে অলিম্পিয়াড কমিটির এক ঝাঁক স্বপ্নবাজ তরুণ। নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখে অলিম্পিয়াডকে নিয়ে যাচ্ছে অনন্য উচ্চতায়। অলিম্পিয়াড ছাড়াও বছরজুড়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা, প্রেস টক এবং কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে বছর জুড়েই পত্রিকা পাঠের অভ্যাস তৈরি করা হচ্ছে। প্রথম বর্ষের সফল আয়োজনে পাশে পেয়েছে অনেক গুণী মানুষের সহযোগিতা, আশীর্বাদ এবং ভালোবাসা। প্রতিনিয়তই অলিম্পিয়াডকে নিয়ে নতুন নতুন স্বপ্ন বুনছে কমিটির সদস্যরা। এখানেই শেষ নয় – অলিম্পিয়াড এর দ্বিতীয় বর্ষের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শুরু হয়ে যাচ্ছে । নতুন নতুন সব আয়োজন নিয়ে অলিম্পিয়াড কমিটি আবারো হাজির হবে কোনো এক সোনালি সকালে কিংবা পড়ন্ত বিকেলের কোনো এক সময়ে … সকলের আন্তরিকতা আর ভালোবাসাই অলিম্পিয়াডকে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে দিতে সাহায্য করবে ।

– মহিবুল ইসলাম বাঁধন ( গবেষণা সম্পাদক, জাতীয় পত্রিকা অলিম্পিয়াড কেন্দ্রীয় কমিটি)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here