বদরুল ইসলাম :

বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের প্রান্তিক জেলা পঞ্চগড়ের সন্তান রাশেদ আল মামুন। সেখানেই বেড়ে উঠা রাশেদের। ছোট্টবেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি প্রবল আগ্রহ তাকে পৌছে দিয়েছে অভিনয় জগতে। এ জগতে অল্প সময়ে তিনি সুনামও কেড়েছেন বেশ।

আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে আসছে অভিনেতা রাশেদ আল মামুন’র স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “পাথরের চোখ নিয়ে বাঁচি”।

বাংলার কোন এক সবুজ শ্যামল গ্রামীণ পটভূমিতে বহু বছর আগে ঘটে যাওয়া একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত রোমান্টিক এই গল্পটি। গল্পের মূল চরিত্র হাদি ও সারথি, বুঝতেই পারছেন মুসলিম ছেলে ও হিন্দু মেয়ের গল্প। রোমান্টিক গল্পটি শেষে গিয়ে মোড় নেয় শুধু কান্নায়। মুসলিম ছেলে, নির্বাক হাদি এখনো সারথির চিতা জ্বালানোর জায়গায় অপেক্ষার প্রহর গুণতে থাকে। সারথির জন্য সে পাথরের চোখ নিয়ে বেচে আছে।

সোহেল আরিয়ানের পরিচালনায় স্বল্প দৈর্ঘ্য এই চলচ্চিত্রের অভিনয়ে রয়েছেন, সুস্মিতা সিনহা, রাশেদ আল মামুন, কাজী উজ্জল, তমাল মাহবুব, আফসা পারভীন, সৃজন সোহাগ। সহকারি পরিচালক: প্রান্ত ও পিঞ্জু। ফিল্মটির আর্ট ডিরেক্টর ছিলেন, নাজির আহাম্মেদ। প্রযোজনায় চিত্রকল্প।

মজার বিষয় স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র “পাথরের চোখ নিয়ে বাঁচি” এখানে হাদি চরিত্রে থাকবেন রাশেদ আল মামুন।

পঞ্চগড় সদর উপজেলার খানপুকুর খোলা পাড়ার মোঃ বজলার রহমানের ছেলে রাশেদ। ২০০৮ সাল থেকে থিয়েটার করেন পঞ্চগড় নাট্য সমিতিতে। এখান থেকেই শুরু তার অভিনয়ের যাত্রা। ২০০৯ সালে শিল্পকলা একাডেমী অায়োজিত নাট্য উৎসবে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। ২০১৩ থেকে ঢাকায় থিয়েটার করেন। প্রায় ৮০ এর অধিক মঞ্চ নাটকে অভিনয় করেছেন রাশেদ। নিয়মিত খন্ড টিভি নাটকও করছেন, কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকেও অভিনয় করেছেন তিনি।

সবার কাছে দোয়া চান রাশেদ। তিনি অভিনয়ের মাধ্যমে আমাদের সমাজকে আরো সুন্দর করতে চান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here