আল জুবাইয়ের আলিম

ললিপপ, জেলিবিন, কিটকাট, মার্শমেলো। এসব শব্দের সাথে আমরা পরিচিত, কিন্তু এগুলো কি! সেটাই জানা নেই আমাদের।

এন্ড্রয়েড হলো একটি ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম। এই অপারেটিং সিস্টেম সময়ের তালে তালে একেক সময় একেকটি রুপ বৈচিত্র্য নিয়ে আমাদের সামনে হাজির হয়েছে। ব্যবহারে বৈচিত্রের পাশাপাশি অনেক বেশী ফিচার নিয়ে বার বার পরিবর্তনশীল এই এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমকে বলে এন্ড্রয়েড ভার্শন। এই এন্ড্রয়েড ভার্শনের প্রথম ভার্শনটি (Astroid) মুক্তিপায় ২০০৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর। তখন থেকে এই পর্যন্ত ১৬ টি ভার্শন মুক্তি পেয়েছে এবং কাজ চলছে আরো উন্নত ফিচার নিয়ে নতুন নতুন ভার্শন মুক্তি দেওয়ার।

 

এই পর্যন্ত মুক্তি পাওয়া ভার্শনগুলো উল্লেখপূর্বক রিলিজ ডেট দেওয়া হলোঃ-

Astroid = 1.0 = 23/09/2008

Petit Four = 1.1 = 09/02/2009

Cup Cake = 1.5 = 27/04/2009

Donut = 1.6 = 15/09/2009

Eclair = 2.0-2.1 = 26/10/2009

Froyo = 2.2-2.2.3 = 20/05/2010

Gingerbread = 2.3-2.3.7 = 06/12/2010

Honeycomb = 3.0-3.2.6 = 22/02/2011

Ice Creme Sandwich = 4.0-4.0.6 = 18/10/2011

Jelly Bean = 4.1-4.3.1 = 09/07/2012

KitKat = 4.4-4.4.4 = 31/10/2013

Lollipop = 5.0-5.1.1 = 12/11/2014

Marshmallow = 6.0-6.0.1 = 05/10/2015

Nougat = 7.0-7.1.2 = 22/08/2016

Oreo = 8.0-8.1 = 21/10/2017

Pie = 9.0 = 06/10/2018

এই ভার্শনগুলোর মধ্যে Marshmallow পর্যন্ত ভার্শনগুলোকে পুরাতন (Old) ভার্শন ধরা হয়। Nougat & Oreo কে চলমান কিন্তু লেটেস্ট নয় (Older) এমন ভার্শন ধরা হয়। এবং এন্ড্রয়েড এর Pie ভার্শনটিকে লেটেস্ট বা আধুনিক ভার্শন হিসেবে গন্য করা হয়।

পরবর্তীতে যে এন্ড্রয়েড ভার্শনটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে, তার নাম হলো (Q)।

এখন মূল কথায় আসি, আমরা প্রযুক্তির যুগে বাস করি। আর এই প্রযুক্তি প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল, তাই পরিবর্তনশীলতাকে মেনে নিয়ে আমাদের এর সাথে সাথে তাল মিলিয়ে আপডেট থাকতে হবে। এজন্যই আপনাকে জানতে হবে আপনার এন্ড্রয়েড ফোনটির ভার্শন কি, এবং আপনার এন্ড্রয়েড ফোনটিকে কিভাবে আপডেট করতে পারবেন।

এন্ড্রয়েড ভার্শন চেকঃ

১। মোবাইল অন করে মোবাইলের সেটিংস অপশনে যান।

২। “About phone” অপশনটি পেয়ে গেলে এখানে ক্লিক করুন। যদি সরাসরি সেটিংস এ না পান তাহলে “system” অপশন পাবেন, ওখানে ক্লিক করে “About phone” অপশনে ক্লিক করুন।

৩। “About phone” এ ক্লিক করার পর আপনি “Android Version” নামে একটি অপশন পাবেন। ঐ অপশনে বারবার একটানা ক্লিক করতে থাকুন দ্রুত।

৪। তাহলেই আপনি জেনে যাবেন, আপনার ফোনের চলমান ভার্শনটির নাম।

এখন আসি কিভাবে আপডেট করবেনঃ

আপডেট ভার্শনে রুপান্তরিত করতে হলে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

১। মোবাইল অন করে মোবাইলের সেটিংস অপশনে যান।

২। “About phone” অপশনটি পেয়ে গেলে এখানে ক্লিক করুন। যদি সরাসরি সেটিংস এ না পান তাহলে “system” অপশন পাবেন, ওখানে ক্লিক করে “About phone” অপশনে ক্লিক করুন।

৩। এখন আপনি “Android security patch level” নামে একটি অপশন পাবেন। এখানে ক্লিক করুন।

৪। যদি আপনার মোবাইলটিতে আপডেট ভার্শন ব্যবহার করার অনুমতি থাকে তাহলে ক্লিক করার সাথে সাথে ডাউনলোড অপশন আসবে।

৫। ডাউনলোড করে ইন্সটল করে আপনিও হতে পারেন একজন pie ব্যবহারকারী বা লেটেস্ট ভার্শন ব্যবহারকারী।

বিঃদ্রঃ ভার্শন ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে যেসকল বিষয়ে সতর্ক থাকবেনঃ—-

১। মোবাইলে পর্যাপ্ত চার্য রাখবেন।

২। ভার্শন ডাউনলোডের ফাইল ১ জিবি এর কম বেশী হতে পারে। তাই ওয়াইফাই ব্যবহার করা ভালো।

৩। ভার্শন ইন্সটল হতে ৫-১০ মিনিট পর্যন্ত সময় নিতে পারে, এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। বা ভয় পেয়ে ব্যাটারি খুলে ফেলার মতো বোকামো অবশ্যই করবেন না। কারণ পুরো সিস্টেমটি যেখানে পরিবর্তন হচ্ছে, সেখানে আপনি যদি একবার বাধা দেন, তাহলে পরবর্তীতে মোবাইলটি অন না হওয়ার মতো অবস্থা তৈরি হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here