মঙ্গলের ভূমিকম্পের তথ্য থেকে গ্রহটির অভ্যন্তরের আরও তথ্য সম্পর্কে ধারণা পেতে চলতি সপ্তাহে নতুন মিশনে নামছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। ইনসাইট নামের এই মিশনের অংশ হিসেবে চলতি সপ্তাহেই একটি অনুসন্ধান যন্ত্র লাল গ্রহটিতে পাঠানো হচ্ছে।

স্ট্যাটিক ল্যান্ডার যন্ত্রটি মঙ্গলে নামার পর সেখানকার মাটিতে সিসমোমিটার স্থাপন করবে বলে জানা গিয়েছে। সেই সিসমোমিটারে ব্রিটেনের তৈরি একটি সেন্সরও থাকছে। এই ভূমিকম্প মাপার যন্ত্রই মহাকাশ বিজ্ঞানীদের মঙ্গলের ভূমিকম্প ‘মার্সকোয়াক’ সম্বন্ধে তথ্য দেবে। পৃথিবীর সঙ্গে তুলনার পর মিলবে মঙ্গলের অভ্যন্তরীণ কাঠামোতে থাকা পাথরের স্তর সংক্রান্ত তথ্যও।

ইনসাইট মিশনের প্রধান গবেষক ড, ব্রুস বেনার্ডট জানিয়েছেন, “যখন সিসমিক তরঙ্গ মঙ্গলের চারপাশে প্রবাহিত হবে, তখন (যন্ত্রটি) বিভিন্ন স্তরের পাথরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত তরঙ্গগুলোর তথ্য জোগাড় করতে পারবে। সিসমোগ্রাফে এ সংক্রান্ত তথ্য পাওয়ার পরই বিজ্ঞানীরা সেখানকার পাথরের গঠন জানতে পারবেন। বিভিন্ন মার্সকোয়াক থেকে যখন আমরা নানান তথ্য পাবো, সব মিলিয়ে আমরা মঙ্গলের অভ্যন্তরের ত্রিমাত্রিক চিত্রটি নির্মাণ করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন ব্রুস বেনার্ডট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here