ঢাকার মিরপুরের জনমানুষের মনে মাস্ক ব্যবহার এবং বায়ুদূষণ নিয়ে সচেতনতা ছড়িয়ে দেয়ার পর “স্বপ্নদ্রষ্টা” সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাসান সজলের নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবক দল কাজ করেছে গাজীপুরের টঙ্গী অঞ্চলের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের নিকট এবং খেটেখাওয়া পরিশ্রমী মেহনতি মানুষদের নিকট সচেতনতার বার্তা পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে।

ইতিমধ্যে দূষিত শহরের মধ্যে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা বেশ সুনাম অর্জন করেছে। বায়ুদূষণ এর দৌড়ে হয়তো ঢাকা প্রথম স্থানেই রয়েছে। এই শীতকালীন সময়ে বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চল কুয়াশাঘেরা থাকলেও, ঢাকা এবং গাজীপুর আচ্ছন্ন থাকে ধুলোবালিতে।

অধিকাংশ স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ মাস্ক ব্যবহার করলেও সুবিধাবঞ্চিত, দিনমজুর এবং খেটেখাওয়া পরিশ্রমী মানুষগুলো রাখেনা এই বিষয়ে সামান্যতম জ্ঞান। ধুলোয় আচ্ছন্ন ঝাপসা রাস্তায় ঠিকই হয়তো ফেরী করে বেড়ায় কিন্তু নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে, বায়ুদূষণ নিয়ে সচেতন হওয়ার চিন্তাও যেন বিন্দুমাত্র নেই।

ঠিক এই ধরনের মানুষগুলোর স্বাস্থ্যের কথা, বায়ুদূষণ এর ফলে সৃষ্ট ক্ষতিকর প্রভাবের কথা চিন্তা করে ‘স্বপ্নদ্রষ্টা’ সমাজকল্যাণমূলক সংগঠন যেই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তা ইতিমধ্যে ঢাকা জেলার মিরপুরে বেশ সাড়া ফেলেছে এবং মিরপুর অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবীরাও হয়েছে প্রশংসিত। তারই ধারাবাহিতা বজায় রেখে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবীরাও উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।

“হও সচেতন তুমি
হই সচেতন আমি
হন সচেতন আপনি” – স্লোগানকে সামনে রেখে বায়ুদূষণের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রক্ষায় “জনসচেতনতা তৈরী ও মাস্ক বিতরণ” কর্মসূচির আয়োজন করেছে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবীরা।

‘স্বপ্নদ্রষ্টা’ সমাজকল্যাণমূলক সংঠনের সম্মানিত সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাসান সজলের নেতৃত্বে টঙ্গী অঞ্চলের বেশ কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবী এ কর্মসূচি আয়োজন করে এবং দিনব্যাপী জনসচেতনতা তৈরী করে বেড়ায় সচেতন ফেরিওয়ালা হয়ে। সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাসান সজল জানান মাস্ক বিতরণের এই ভিন্নধর্মী কর্মসূচি নিয়ে শুরু থেকেই বেশ আগ্রহী ছিলো টঙ্গী অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবীরা। কর্মসূচি আয়োজনকালে জনমানুষের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন বেশ স্বেচ্ছাসেবীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here